আবরার হত্যার ঘটনায় বিএনপি দাবি করেছে

আবরার হত্যার ঘটনায় বিএনপি দাবি করেছে

অনলাইন ডেস্কঃ

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) নিহত শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে দেশের ‘স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব’ রক্ষার যুদ্ধে প্রথম শহীদ আখ্যা দিয়ে বিএনপি দাবি করেছে ফেনী নদীর নাম ‘আবরার নদ’ করা হোক।

মঙ্গলবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় অফিসে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আরও দাবি করেন, আবরার হত্যার ঘটনায় সোমবার রাতে চকবাজার থানায় যে মামলা হয়েছে সেখানে অন্যতম অভিযুক্তের নাম নেই।

তিনি বলেন, ‘দেশের মাটি, পানি, সম্পদ অন্যের হাতে চলে যাবে, অথচ এটির বিরুদ্ধে সমালোচনা করলে তাকে অকথ্য টর্চার করে হত্যা করা হবে-এটাই হচ্ছে বর্তমান সরকারের নীতি।’

আবরার ফাহাদকে নৃশংসভাবে হত্যার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে প্রকৃত হত্যাকারীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানান তিনি।

ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের হাতে মারপিটের শিকার হয়ে নির্মমভাবে নিহত হন বুয়েটের শের-ই-বাংলা হলের আবাসিক ছাত্র আবরার ফাহাদ (২১)। রবিবার রাত ৩টার দিকে হলের সিঁড়ি থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সোমবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আবরার হত্যার ঘটনায় তার বাবা রাজধানীর চকবাজার থানায় ছাত্রলীগের ১৯ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

রিজভী অভিযোগ করেন, ওই মামলায় আসামি হিসেবে ১৯ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু রহস্যজনকভাবে ১৯ জনের মধ্যে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় অন্যতম অভিযুক্তের নাম নেই।

তিনি প্রশ্ন করেন, শের-ই-বাংলা হলের ২০১১ নম্বর রুম তথা টর্চার সেলটি কার? তাকে বাঁচাতে বুয়েট প্রশাসন উঠেপড়ে লেগেছে। নির্লজ্জ বুয়েট প্রশাসন এই হত্যাকাণ্ডকে সামান্য অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যু বলেও বিবৃতি দিয়েছে।

বিএনপি নেতা আরও অভিযোগ করেন, দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাত্রলীগের ‘ক্যাডারদের’ হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছে। ছাত্রলীগ নামক এই ‘দানব জঙ্গিলীগকে’ নিষিদ্ধ ঘোষণা না করলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে লেখাপড়ার পরিবেশ ফিরবে না, শিক্ষার্থীদের জীবনের নিরাপত্তা থাকবে না।

রিজভী বলেন, ফেসবুকে ‘দেশবিরোধী’ চুক্তির বিরুদ্ধে স্ট্যাটাস দেয়ার অপরাধে নারকীয় কায়দায় রাতভর নির্যাতন চালিয়ে ছাত্রলীগের ‘ক্যাডাররা’ খুন করেছে বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদকে। তার মতো নিরীহ নিরপরাধ দেশপ্রেমিক মেধাবী ছাত্রকে হত্যার মাধ্যমে ছাত্রলীগ প্রমাণ করেছে যে, শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানে সাধারণ শিক্ষার্থীদের জান-মালের কোনো নিরাপত্তা নেই।

তিনি আরও বলেন, সম্প্রতি ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক চুক্তির বিরুদ্ধে কর্মসূচি ঘোষণা করবে তাদের দল। ‘আমাদের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনগুলোও এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাচ্ছে। আমরা গতকাল (সোমবার) একটি মিছিল করেছি এবং এ ধরনের প্রতিবাদ অব্যাহত থাকবে।’

সূত্র: ইউএনবি

pbnews/mkn

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




পর্তুগাল বাংলানিউজ

প্রধান উপদেষ্টা: কাজল আহমেদ

পরিচালক: মোঃ কামাল হোসেন, মোঃ জহিরুল ইসলাম

প্রকাশক: মোঃ এনামুল হক

যোগাযোগ করুন

E-mail : [email protected]

Portugalbanglanews.com 2019
Developed by RKR BD